1. mohib.bsl@gmail.com : admin : Md Mohibbullah
  2. editor@barisalerkhobor.com : editor :
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:৪২ অপরাহ্ন

জনসংখ্যা বাড়াতে নতুন অ্যাপ আনল জাপান

  • Update Time : সোমবার, ১০ জুন, ২০২৪
  • ৪ Time View

জাপানের জনসংখ্যা কমে যাওয়ার সমস্যাটি সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আরও গুরুতর আকার ধারণ করেছে।  জনসংখ্যা হ্রাস বাড়ানোর জন্য নাগরিকদের বিয়ে এবং স্মার্ট পরিবার গঠনের জন্য উৎসাহিত করছে সরকার। এমনকি সরকারিভাবে এবার ডেটিং অ্যাপেরও যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে দেশটি।

শুক্রবার জাপানের স্বাস্থ্য, শ্রম ও কল্যাণ মন্ত্রণালয় একটি নতুন পরিসংখ্যানে জানিয়েছে, আগের বছরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশটির মা-প্রতি শিশু জন্মের হার ছিল ১ দশমিক ২৬। কিন্তু সর্বশেষ পরিসংখ্যানে এই হার ১ দশমিক ২০-এ নেমে এসেছে। যার কারণে এমন পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে দেশটি।

এক কর্মকর্তার বরাতে টোকিওটুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতীয় জন্মের হার বাড়ানোর জন্য সরকার এই গ্রীষ্মের প্রথমদিকে তার নিজস্ব ডেটিং অ্যাপ চালু করবে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ১৯৭৩ সালে বিশ্বজুড়ে জ্বালানি সংকটের জন্য অর্থনৈতিক সংকোচনের সময় এমনটি ঘটেছিল। কিন্তু এর পর থেকে জাপানে সন্তান জন্মের হার প্রতিনিয়ত কমেই যাচ্ছে।

জাপানের জনসংখ্যা কমে যাওয়ার সমস্যাটি সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আরও গুরুতর আকার ধারণ করেছে। কারণ, এই বছরগুলোতে দেশটির মৃত্যুবরণ করা মানুষের সংখ্যা শিশু জন্মের সংখ্যাকে ছাড়িয়ে গেছে। এর ফলে দেশটির জনসংখ্যা দ্রুত কমতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে দেশটির শ্রমশক্তি, অর্থনীতি এবং সামাজিক ক্ষেত্রে।

২০২৩ সালে জাপানে ১৫ লাখ ৭০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর মানে হলো, গত বছর দেশটিতে মৃত্যুবরণ করা মানুষের সংখ্যা নতুন জন্ম নেওয়া শিশুদের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি ছিল। গত বছর ১২ কোটি ৩৯ লাখ জনসংখ্যার দেশে মাত্র ৭ লাখ ২৭ হাজার ২৭৭ জন শিশুর জন্ম হয়েছে।

দেশটির তরুণ-তরুণীদের বিয়ে করার হারও অনেক কমে গেছে। গত বছর দেশটিতে সব মিলিয়ে মাত্র ৩০ হাজার বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যদিকে বিচ্ছেদের ঘটনা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে।

সর্বশেষ পদক্ষেপ অনুযায়ী, দেশটির রাজধানী টোকিওতে সরকারি একটি ডেটিং অ্যাপ পরীক্ষামূলকভাবে চালু করেছেন নগর কর্মকর্তারা। বর্তমানে এই অ্যাপ একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে থাকলেও আশা করা হচ্ছে, চলতি বছরের শেষের দিকে এটির কার্যক্রম পুরোপুরিভাবে শুরু হবে।

অ্যাপটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‘বিয়ের জন্য প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে দয়া করে এটিকে ব্যবহার করুন, প্লিজ।’

অ্যাপটিতে জাপানি নারী ও পুরুষদের পছন্দের পাত্রপাত্রী খুঁজে দিতে কাজ করবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। এই অ্যাপে আগ্রহীরা স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিবরণসহ তাদের কাঙ্ক্ষিত পাত্র-পাত্রীর ক্ষেত্রে পছন্দ-অপছন্দের নানা তথ্য সংযোজন করবেন। সেই অনুযায়ী একজন যোগ্য সঙ্গী খুঁজে দেবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved ©
Theme Customized By BreakingNews
Optimized by Optimole