1. admin@barisalerkhobor.com : admin : Md Mohibbullah
  2. editor@barisalerkhobor.com : editor :
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:১১ অপরাহ্ন

মন্ত্রিসভা গঠন কাল, ভাগ্য খুলতে পারে তরুণ নেতাদের

  • Update Time : বুধবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২৮ Time View

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে দলটি। ইতোমধ্যে বুধবার শপথ নিয়েছেন নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় বঙ্গভবনে শপথ নেবেন নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা।

এবারের মন্ত্রিসভায় দলের বেশ কয়েকজন তরুণ নেতা সুযোগ পেতে পারেন বলে দলটির অভ্যন্তরীণ সূত্রে জানা গেছে। কারণ পরবর্তী প্রজন্মের নেতাদের সামনে আনতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের অন্য নেতাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা না করলেও অনেক নেতা মনে করেন, বর্তমান মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজন সদস্য, যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ছিল, তাদের জায়গায় পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তিসম্পন্নদের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগের একাধিক সিনিয়র নেতা বলেছেন, সংসদ সদস্যদের মনোনয়ন দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী যে কৌশল অনুসরণ করেছিলেন, মন্ত্রিসভার সদস্য বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও তিনি সেটাই অনুসরণ করতে পারেন।

দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার সময় আওয়ামী লীগ তখনকার ৭১ এমপিকে বাদ দিয়ে ৮১ সদস্যের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ থেকে ৩৭ জনকে বেছে নেয়। বর্তমান মন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান, কেএম খালিদ ও জাকির হোসেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাননি।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সদস্য বলেন, নতুন মন্ত্রিসভায় অভিজ্ঞদের পাশাপাশি নতুন মুখ থাকবে। কিন্তু সর্বোপরি পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির অধিকারীরা অগ্রাধিকার পাবেন।

এ ছাড়া বছরের পর বছর ধরে দলের প্রতি অবিচল আনুগত্য দেখিয়েছেন, এমন নেতাদের ব্যাপারেও বিবেচনা করা হবে।

গত নভেম্বরে তিন টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীর পদত্যাগের পর বর্তমান মন্ত্রিসভায় শেখ হাসিনাসহ ৪৫ জন আছেন। তাদের মধ্যে ২৩ মন্ত্রী, ১৮ প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, প্রথমবারের মতো মনোনয়ন পাওয়া একজন আওয়ামী লীগ নেতা এবং কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্যও নতুন মন্ত্রিসভায় থাকতে পারেন।
২০০৮ সালের নির্বাচনের পর মন্ত্রিসভার সদস্য হয়ে ২০১৪ ও ২০১৮ সালে গঠিত মন্ত্রিসভায় বাদ পড়া বেশ কয়েকজন নেতা মন্ত্রিসভায় ফিরে আসতে পারেন।

রোববারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টানা চতুর্থবারের মতো বিজয়ী হয়েছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন ২২২টি আসনে এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পেয়েছেন ৬২টি আসন।

জাতীয় পার্টি পেয়েছে ১১টি আসন এবং আওয়ামী লীগের তিন শরিক দলের প্রতিটি (বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি) একটি করে আসনে জয়ী হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় বঙ্গভবনের দরবার হলে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথবাক্য পাঠ করাবেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved ©
Theme Customized By BreakingNews
Optimized by Optimole