1. mohib.bsl@gmail.com : admin :
  2. h.m.shahadat2010@gmail.com : editor : Barisalerkhobor
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০০ অপরাহ্ন

ইউক্রেনের পরমাণু কেন্দ্রের প্রধানকে আটক করেছে রাশিয়া

  • Update Time : শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৬ Time View

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ইউক্রেনে রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত জাপোরিঝিয়া পরমাণু শক্তি কেন্দ্রের মহাপরিচালককে আটক করেছে রাশিয়া। ওই পরমাণু শক্তি কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা রাষ্ট্রীয় সংস্থা এনারগোটম শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ওই সংস্থার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকাল ৪টার দিকে এনেরহোদার শহরে অবস্থিত ইউরোপের বৃহত্তম পরমাণু শক্তি কেন্দ্র থেকে ফেরার পথে এর মহাপরিচালক ইহোর মুরাশোভকে আটক করা হয়। তাকে তার গাড়ি থেকে বের করা হয় এবং চোখ বেঁধে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

সম্প্রতি ইউক্রেনের অধিকৃত চার অঞ্চলকে রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্তির ঘোষণা দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) মস্কো থেকে দেওয়া এক ভাষণে এই ঘোষণা দেন তিনি। পুতিন বলেছেন, ওই চার অঞ্চলের জনগণ তাদের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে। ফলাফল সবারই খুব ভালোভাবে জানা।

ইউক্রেনের লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, জাপোরিঝিয়া ও খেরসনকে রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার প্রশ্নে গণভোট শুরু হয়েছিল গত শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর)। পাঁচদিন ধরে চলে এই ভোট। এতে ব্যালটবক্স নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যান রাশিয়ার নিয়োগ দেওয়া নির্বাচনী কর্মকর্তারা। গণভোটে ৯৬ শতাংশ মানুষ রাশিয়ায় যোগদানের পক্ষে মত দিয়েছে বলে দাবি করেছে মস্কো। যদিও এই ভোট এবং এর ফলাফল অস্বীকার করেছে ইউক্রেন ও পশ্চিমারা।

 

এই চারটি অঞ্চল ইউক্রেনের প্রায় ১৫ শতাংশ এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। রাশিয়া সেগুলোকে নিজের সীমানাভুক্ত করার পর দাবি করতে পারবে, ইউক্রেনকে দেওয়া ন্যাটো জোট ও পশ্চিমা দেশগুলোর অস্ত্র দিয়ে তাদের ভূখণ্ডে আক্রমণ চালানো হচ্ছে।

অপরদিকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পরমাণু হুমকিকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে বর্তমানে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেইক সুলিভান। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন তিনি।

 

সুলিভান হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এই ঝুঁকি খুব গুরুত্ব সহকারে নিচ্ছে এবং রাশিয়ার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে সরাসরি যোগাযোগ করছে। মস্কো যদি এই ‌‌‘অন্ধকার পথে’ হাঁটতে চায় তবে যুক্তরাষ্ট্র কী পদক্ষেপ নেবে সেসব বিষয়ে আলোচনা করতে চায় ওয়াশিংটন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com