1. mohib.bsl@gmail.com : admin :
  2. h.m.shahadat2010@gmail.com : editor :
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:০৮ অপরাহ্ন

চেকপোস্টে প্রবাসীকে নির্যাতনের অভিযোগ বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে

  • Update Time : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৭ Time View

অনলাইন ডেস্কঃ

কক্সবাজার-টেকনাফ শামলাপুর শালখালী চেকপোস্টে আবদুল্লাহ (৩৫) নামে এক প্রবাসীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার প্রবাসীর পরিবারের অভিযোগ, চেকপোস্টে ইয়াবা না পেয়ে বিজিবি সদস্যরা আবদুল্লাহকে আটকিয়ে নির্যাতন চালিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে টেকনাফ উপজেলা শামলাপুর শীলখালী বিজিবি চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটে। বিজিবির সদস্যদের হাতে মারধরের শিকার প্রবাসী টেকনাফ উপজেলার কায়ুকখালী পাড়ার মৃত শফিউজ্জামানের পুত্র। এ ঘটনায় বিজিবির বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না দিতে একটি ভিডিও ধারণ করে বলে জানান ভুক্তভোগী প্রবাসী।

আবদুল্লাহ বলেন, কিছুদিন আগে মায়ের মৃত্যুর সংবাদ শুনে মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরেন। তার দুটি স্ত্রী রয়েছে। প্রথম স্ত্রী টেকনাফ ও ২য় স্ত্রী কুমিল্লায় থাকেন। কুমিল্লা থেকে টেকনাফে এসেছিলেন মায়ের কবর জিয়ারত করতে। কবর জিয়ারত শেষে প্রথম স্ত্রীর কাছ থেকে বিদায় নিয়ে সন্ধ্যায় টেকনাফ থেকে নীলদরিয়া নামের মিনি বাস করে কক্সবাজার ফেরার পথে শীলখালী বিজিবি চেকপোস্টে পৌঁছালে বিজিবির একজন সদস্য আমার দেহ তল্লাশি করে। কিছু না পেয়ে একটি গোপন টর্চার কক্ষে নিয়ে উলঙ্গ করে তল্লাশি করে। এ সময় বিজিবির সদস্যরা কিছু না পেয়ে তোর কাছে ইয়াবা আছে বলে থাপ্পড় মারে। স্যার আমার কাছে কিছু নেই বললেও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। কিছুক্ষণ মারধরের পর একটি খালি জায়গায় নিয়ে ইয়াবা আছে- এমন অভিযোগ তুলে বল প্রয়োগে মলত্যাগ করান। এতেও ইয়াবা না পেয়ে বিজিবির দুই সদস্য ক্ষিপ্ত হয়ে শালার ব্যাটা তোর কাছে ইয়াবা আছে বলে আবারো মারধর করেন। এতে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। কিছুক্ষণ পর মুমূর্ষু অবস্থায় আমাকে একটা গাড়িতে তুলে দেন। ওই গাড়িটা আমাকে টার্মিনাল এসে ফেলে দিয়ে চলে যায়।

কক্সবাজার টার্মিনালে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন শামসুল আলম শ্রাবণ নামে স্থানীয় এক সংবাদকর্মী। পরে শ্রাবণ তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান।

শ্রাবণ বলেন, তাকে উদ্ধারের পর জানতে চাইলে তিনি জানান, বিজিবি চেকপোস্টে ইয়াবা না পেয়ে তাকে মারধর করেছে। পরে আমি তার অবস্থা অবনতি দেখে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসি, জানান শ্রাবণ।

এই বিষয়ে টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শেখ খালিদ মোহাম্মদ ইফতেখার জানান, নির্যাতনের বিষয়টি সত্য। এই ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। চেকপোস্টের এ ঘটনায় যারা জড়িত ছিল ইতোমধ্যে তাদের বিজিবির সদর দপ্তরে আনা হয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com