1. mohib.bsl@gmail.com : admin :
  2. h.m.shahadat2010@gmail.com : editor :
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

বাকেরগঞ্জে পশু হাসপাতালের অপচিকিৎসায় ৬ ছাগলের মৃত্যু

  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২
  • ৩৯ Time View

বাকেরগঞ্জে পশু হাসপাতালের অপচিকিৎসায় ৬ ছাগলের মৃত্যু
বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি
বরিশালের বাকেরগঞ্জের পশু হাসপাতালের উপ সহকারী হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে এক খামারী অফিসে অনিয়মের অভিযোগ দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে মেডিকেলে সেবা নিতে আসা ছাগলের খামারিকে ইচ্ছাকৃতভাবে অপচিকিৎসা দিয়ে ৬ টি ছাগল হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগ সুত্রে জানাযায় রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের মৃত্যু দলিল উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র মোঃ শাহজামাল হাওলাদারের খামারে উন্নত জাতের২৫ টি ছাগল পালন করেন জাহার আনুমানিক মূল্য ৫ থেকে ৬ লক্ষ টাকা। তার খামারের ছাগলের কোন অসুখ বিসুখ হলে বাকেরগঞ্জের পশু হাসপাতালের উপ সহকারী হাবিবুর রহমান চিকিৎসা করতেন,তাকে খামারে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা দিলে প্রতিবার তাকে জাতায়াত ফ ী ও চিকিৎসা বাবদ দিতে হতো ১৫০০ থেকে ২০০ হাজার টাকা খরচ দিতে হতো। সম্প্রতি তাকে কিছু টাকা কম দিলে তিনি আমার সাথে খারাপ আচরণ করেন।
এছাড়াও তাকে ভেকসিনের জন্য টাকা দিলে তিনি আমাকে ৬-৭ মাস ঘুরিয়ে ভেকসিন না দেয়ায় উপরস্থ কর্মকর্তাদের অবহিত করলে উপসহকারী হাবিবুর রহমান আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়।
পরবর্তীতে গেল সাত আটদিন পূর্বে আমাকে একটা ভেকসিন দিয়ে উপরস্থ কর্মকর্তাদে না জানাতে অবরোধ করেন।
আমি সরল বিশ্বাসে তার দেয়া ভেকসিন ছাগলকে দিলে সে-ই রাতেই ৪ টি ছাগল মারা জায় এবং দুটি ছাগল অসুস্থ হয়, উপয়ান্ত না দেখে আমি পরেরদিন বাকেরগঞ্জ উপজেলা পশু হাসপাতালের চিকিৎসার জন্য নিয়ে এলে ডাক্তার রাসেল আহামেদ আমার ছাগলের চিকিৎসা দেন বর্তমানে আমার ১৯টি ছাগল মুমূর্ষু অবস্থায় রয়েছে । এবিষয়ে উপসহকারী হাবিবুর রহমানকে জানালে তিনি আমাকে বলেন তোমার ছাগলের ভাইরাস হয়েছে তুমি সব ছাগল বিক্রি করে আবার নতুন করে ছাগল কেন। তোমার খামারের একটি ছাগলও বাচবেনা।সেই রাতেই আমার আরো দুটি ছাগল মারা জায়।
আমার ছাগলকে পরিকল্পিত ভাবে অপচিকিৎসা দিয়ে হত্যা করেছেন আমি এর বিচার চাই। এবিষয়ে অভিযুক্ত উপ সহকারী হাবিবুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি তাকে ভালো ভেকসিন দিয়েছি তবে টাকা নেয়ার ব্যাপারটি এরিয়ে জান। এবিষয়প (ভারপ্রাপ্ত) উপজেলার প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার রাসেল আহমেদ জানান আমি নিজেও তার একাধিক ছাগলের চিকিৎসা দিয়েছি ছাগলগুলোই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন। এবং উপসহকারী হাবিবুর রহমানের অনিয়মের বিষয় আমরা কোন লিখিত অভিযোগ পেলে তদান্ত পূর্বক ব্যাবাস্তা গ্রহণ করা হবে। ইউনিয়ন আলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম খোকন বলেন সচ্ছলতার আশায় নিজেই উদ্যোক্তা হয়ে জমি বন্দক ও ধার দেনা করে কিনেছিলেন ২৫ টি ছাগল।গড়েছিলেন সপ্নের খামার।
অপচিকিৎসায় নিমেষেই সাহজামালের খামার টি শেষ আমিএর সুষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে দোষী ব্যক্তির শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।এ বিষয়ে ভুক্তভোগী গণমাধ্যমকে জানায় উপসহকারী হাবিবুর রহমানকে অভিযুক্ত করে বাকেরগঞ্জ থান একটি লিখিত অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com